রবিবার, ১২ জুলাই, ২০১৫

বনফুল: কিছু মজার ঘটনা

১) ডা. বলাইচাঁদকে ল্যাবরেটরির কাজে সাহায্য করত সীতাবি। দূর থেকে রুগীরা আসত। কেউ কেউ পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য আনত ইউরিন আর স্টুলের স্যাম্পেল। একবার এক রুগীর স্টুলের ভাঁড়ের সঙ্গে কারো মিষ্টির ভাঁড় অদল বদল হয়ে যায়। 
সীতাবি গোটা গোটা মিষ্টি দেখে দৌড়ে এসে ডাক্তারবাবুকে বলল, "বাবু ইয়ে মরিজ তো বাচেগা নেহি। ইসকো খানা তো একদম হজম নেহি হুয়া। যৈসে কি তৈসে রহ গিয়া।"

২) অমৃত বাজারের নিয়মিত লেখক আশুবাবু একবার বনফুলকে বললেন, "আপনি কত রকমের কুকুর দেখেছেন?"
বনফুল বললেন, "কেন বলুন তো?"
আশুবাবু, "আর বলেন কেন, এক ভদ্রলোকের ড্রয়িং রুমে পাপোশে পা মুছতে গেলুম, পাপোশটা খ্যাক করে কামড়ে দিল।"

৩) পরিমল গোস্বামী গেছেন ভাগলপুরে বনফুলের বাড়িতে। দুপুরে খেয়ে শুয়েছেন। বিকেলে উঠে বললেন, "আজ রাতে কিছু খাব না। পেটটা গুড় গুড় করছে।"
বনফুলের সন্দেহ হল। তিনি খাটের তলায় উঁকি মেরে দেখলেন, যা ভেবেছেন ঠিক তাই। খাটের তলায় কুকুরটা শুয়ে আছে আর থেকে থেকে গুড় গুড় করছে।

তথ্য : শিলাদিত্য