মঙ্গলবার, ২৪ এপ্রিল, ২০১২

সান্টা সিং এর পুলিশে চাকরীর প্রথম দিন

পরীক্ষায় পাশ করে সান্টা সিং দিল্লী পুলিশে চাকরী পেয়ে গেলো। ডিউটির প্রথম দিন। সান্টা সিংকে সিনিয়র ইন্সপেকটর বান্টা সিং এর সাথে জুড়ে দিয়ে ওসি বললেন, "আজ থেকে তোমরা দুজনে একসাথে কাজ করবে।" একটু পরে একটা জিপসি গাড়ি করে দুজনে এলাকা রাউণ্ডে বেরোলো।
হঠাৎ ওয়ারলেসে খবর এলো যে বেশ কিছু লোক নাকি রাস্তায় জড়ো হচ্ছে। সান্টা আর বান্টাকে কন্ট্রোল রুম থেকে নির্দেশ দেওয়া হলো যে ওই ভিড়টাকে যেনো ছত্রভঙ্গ করে দেয়।
বান্টা গাড়ি ঘুরিয়ে ঐ রাস্তার মোড়ের দিকে চললো। একটা ট্রাফিক সিগন্যালের কাছে হঠাৎ সান্টা দেখতে পেলো যে অনেক লোক - প্রায় জনা চল্লিশ হবে - ভিড় করে দাঁড়িয়ে আছে।
সান্টা গাড়ির কাঁচ নামিয়ে ভিড়ের দিকে মুখ করে চীৎকার করলো, "এই তোমরা শোনো। ওখানে ভিড় করবে না। ওখান থেকে এক্ষুনি সরে যাও।"
লোকেরা অবাক হয়ে সান্টার দিকে তাকালো, কিন্তু কেউই ওখান থেকে নড়ার কোন চেষ্টা করলো না।
সান্টা রেগে গিয়ে আবার বললো, "কি হলো? আমার কথা কানে যাচ্ছে না বুঝি? এক মিনিটের মধ্যে এই জায়গাটা ফাঁকা হয়ে যাওয়া চাই!"
লোকেরা সান্টার দিকে অদ্ভুতভাবে তাকাতে তাকাতে জায়গাটা থেকে আস্তে আস্তে সরে পড়লো।
সান্টা বেশ খুশী হয়ে বান্টার দিকে তাকিয়ে বললো, "বান্টা স্যার, কেমন কাজ করলাম বলুন?"
বান্টা সিং হাসি চাপতে চাপতে বললো, "বহোত বড়িয়া, খুব ইম্প্রেসিভ। বিশেষ করে তুমি যেভাবে লোকগুলোকে বাস স্ট্যাণ্ড থেকে তাড়িয়ে দিলে, তা থেকে মনে হচ্ছে ভিড়টাকেও হালকা করে দিতে পারবে!"