বুধবার, ৩০ মে, ২০১২

সান্টা সিং এর মেয়ে

একজোড়া প্রেমিক-প্রেমিকা রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিলো।
হঠাৎ একটা দশতলা বাড়ির ছাদে এক সর্দারকে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখে ছেলেটা বললো, "একটা মজার জিনিস দেখবে? ঐ ওপরে দেখো সর্দার দাঁড়িয়ে আছে। ওকে খ্যাপাচ্ছি দেখো!"
এই বলেই ছেলেট ওপরে সর্দারের দিকে তাকিয়ে বললো, "ওয়ে সান্টা সিং, দেখো, আমি তোমার মেয়েকে ভাগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি।"
সর্দার এই কথা শুনেই রেগে গিয়ে বললো, "ওয়ে, তেরী তো! তু আবভি রুক জা, ওয়ারনা বহুত পছতায়েগা।"
এই কথা বলেই তাড়াতাড়ি ওদেরকে ধরার জন্য দশতলার ওপর থেকেই দিলো এক ঝাঁপ।
সর্দার এবার ওপর থেকে নীচে পড়ছে।  
আটনম্বর ফ্লোর ক্রস করার সময় সর্দারের মনে পড়লো, "আরে, আমার তো কোনও মেয়ে নেই।"
আরো দু-তিনটে ফ্লোর পড়ার পর তার আবারো মনে পড়লো, "আরে আমার তো বিয়েই হয় নি।"
এইবার আর মাত্র একটা ফ্লোর বাকি, তারপরেই সর্দার মাটিতে আছড়ে পরবে, এমন সময় তার মনে পড়লো, "আরে, ছেলেটা আমাকে বুদ্ধু বানিয়ে গেলো! আমার নাম তো সান্টা সিং-ই নয়!"
তারপরেই ধপাস এবং হাসপাতাল!